বাল্যবিবাহ

হ্যা।আপনি ঠিকই ধরেছেন ,আপনি যেটা মনে করছেন আমি সেটাই বলব।বাংলাদেশের সার্বিক উন্নতি র যে কয়টি বাধা রয়েছে তার মধ্যে বাল্যবিবাহ একটি।বাল্যবিবাহ বলতে বোঝায় ১৮ বছরের নীচের কোনো মেয়ের সাথে ২১ বছরের নীচের কোনো ছেলের বিবাহ হওয়াকে ।এখানে ছেলে বা মেয়ে যেকোনো একজনের বয়স নির্দিষ্ট বয়স থেকে কম হলে সেটা বাল্যবিবাহের অন্তর্ভূক্ত।বাল্যবিবাহের কারণে ছেলেদের থেকে বেশি ক্ষতি মেয়েদের হয়।
বিবাহের পর থেকেই নতুন পরিবেশে নিজেদের মানিয়ে নিতে,পরিবারের নতুন দায়িত্ব সামলাতে,বিভিন্ন সাংসারিক কাজ করতেই তাকে হিমশিম খেতে হয়।এই কাজগুলো হয়ত অনেকের কাছে সহজ বা সাধারণ মনে হতে পারে।কিন্তু একটা কিশোরী মেয়ের কাছে এগুলো সাধারণ না।এই অল্পতেই সে অসুস্থ হয়ে যাবে।তবে আসল ঝুকি টা তখন হয় যখন সে প্রেগন্যান্ট হয়।এবং ঝুকি টা বেড়ে যায় তার সন্তানপ্রসব কালীন সময়ে।সে সময় তার মৃত্যু পর্যন্ত ঘটতে পারে।অন্যদিকে সন্তান পুষ্টিহীনতায় ভোগে।এতে সন্তানের ও একটি ঝুকি থেকেই যায়।
এর ফলে সন্তান অন্যান্য মানুষের মত স্বাভাবিক থাকতে পারেনা।ফলে দেশের উন্নতিতে সে অংশ নিতে পারেনা।
আর তাই একটি পরিবার কে বাঁচাতে আমাদের নিজেদেরকে বাল্যবিবাহ দেওয়ার মত কাজ থেকে বিরত রাখতে তো হবেই।সাথে যারা বাল্যবিবাহ দেয় তাদের কে ও সতর্ক করতে হবে।
আমরা বাল্যবিবাহ রোধ করার জন্য কিছু পদ্ধতি অবলম্বন করতে পারি।যেমন:
১.বাল্যবিবাহ এর কুফল সম্পর্কে সকলকে অবহিত করতে হবে।
২.এর কুফল সম্পর্কে আমরা বিভিন্ন লিফলেট,বুকলেট ইত্যাদি ছেপে সকলের মাঝে বিতরণ করতে পারি।আবার সকলের মাঝে এ বিষয়টি নাট্যভিনয়ের মাধ্যমে ও উপস্থাপন করা যেতে পারে।
৩.সবচেয়ে উত্তম কাজ হল মেয়েদের উচ্চশিক্ষায় শিক্ষিত করতে হবে।
৪.প্রয়োজনে আইনের সহায়তা নিতে হবে(কোনো জায়গায় বাল্যবিবাহ হতে দেখলে কল করুন ১০৯ এই নম্বরে।)।
৫.সবার আগে এই ধরণের কাজ থেকে নিজেকে বিরত রাখতে হবে।
উপরের পদ্ধতিগুলো হয়ত আমরা অক্ষরে অক্ষরে পালন করতে পারব না।কিন্তু একটু চেষ্টা করলে কিছু তো করতে পারব।তবে সেটাই করুন।কারণ আপনার সামান্য চেষ্টাও দেশের উন্নতিতে সহায়তা করবে।তাই আসুন আমরা বাল্যবিবাহ কে না বলি,লেখাপড়া কে হ্যা বলি।দেশের উন্নতিতে অংশ নিই।
আপনারা সবাই ভাল থাকবেন,সেটাই আমাদের কাম্য।
সাইবার বাংলার সাথে থাকুন,ভাল থাকুন।ধন্যবাদ।

Share This:

Shakil

আমি ব্লগ এর জগতে নতুন।তাই লেখার হাত ও এখনো অনুন্নত,উন্নত করার চেষ্টায় আছি প্রতিনিয়ত।।আর তখন ই উন্নত হবে, যখন আপনারা আমার পোস্ট সম্পর্কে মন্তব্য করবেন।সেটা খারাপ হোক বা ভালো।

This Post Has One Comment

Close Menu

Content

Share This: