হোস্টেল রহস্য ২ বাকি অংশ

সিকি:আমরা তো don’t cross রুম এর কাছে চলে আসছি আনিকা।
হিমু:ঠি,,,,ক তা,,,,ই তো কীভাবে আসলাম আনিকা
আনিকা:আমরা তো আমাদের জায়গাতেই ছিলাম,,,,, তাহলে
হিমু:মেম আসার আগে জলদি চল। তিনজন দৌড়াতে লাগলো।
ওদিকে হিমি আর রিথি দেখল পুর্নি ছাদ থেকে লাফ দাওয়ার জন্য করনান যাচ্ছিল।
হিমি: পুর্নি,,,,,,, তু,,,ই কোথায় যাচ্ছিস ওখানে গেলে তো পরে যাবি,,,, পুর্নি
রিথি: ও নিশ্চিত আমাদের ফাসাবে আমাদের ঠিক মিলির মতো।
পুর্নি ধীরে ধীরে লাফ দিয়ে ছাদ থেকে পরে গেল। হিমি আর রিথি চিৎকার দিয়ে পরে গেল অজ্ঞান হয়ে চিৎকার দিয়ে উঠে গেল ৬ জন। পুরো হোস্টেল মাথায়। তুলে। গার্ড মেম এসে বকাবকি করতে লাগলো
৬ জন বললো। হিমি:সিকি,,,, স্বপ্ন ছিল নাকি।।
সিকি:তা,,, তো জানি না
আনিকার দিকে হিমু তাকিয়ে বলল ঘাম বের হচ্ছে কেন তোর কি হয়েছে
আনিকা: নাা,, তেমন কিছু না কি হলো বুজলাম না।
হিমু:আচ্ছা বল তো তোরা আমি যা স্বপ্নে দেখেছি তোরা ও কি দেখেছিস।
সিকি:হ্য দেখেছি আনিকা:আমিও দেখেছি।।। কিন্তু আমার স্বপ্ন ও কি তোরা দেখেছিস মানে বুজতেছি না কিছুই।
গার্ড মেম: মেয়েরা কি শুরু করেছ তোমাদের এই বেচ টা খুব বাজে হয়ে গেছে পুরো হোস্টেল টা মাথায় তুলে নিচ্ছ। তোমরা কি চাও মিলির মতো সাসপেন হতে।
আনিকা: সরি মেম। আর হবে না। আনিকা;তোরা ও বুলে যা এসব
হিমু:কিন্তু।।।।
আনিকা:প্লিজ ক্যরিয়ার গড়তে এসেছি। কম টাকায় সার্মথ হলে তেমন জায়গাতেই যেতাম
হিমু:জানি আনিকা কিন্তু আমরা ও যদি মিলির মতো হয়ে যাই ব্যপার টা বুজ।
আনিক্:এসব বুজে কি হবে তোরাই বল ক্যরিয়ার নাকি। এসব তদন্ত
সিকি: আনিকা ঠিক বলেছে।
চল ক্লাসে।
হিমি:ভুলে গিয়েছিস আজ কে বন্ধ কলেজ। আনিকা: পুর্নি কোথায় কথা ছিল ওর সাথে।
হিমু:জানিনা তো।
হিমি:চল নিচে গিয়ে দেখে আসি
সিকি:কিন্তু আনিকা তুই না বললি এসব ভাববি না আর কেন যাচ্ছিস ওরে খুজতে।
আনিকা: দরকার আছে সিকি পুরো ঘটনা ওর সাথে জুড়ে আর শুরো ও ওর থেকেই শেষ ওর থেকেই।
চল নিচে তোরা তৈরি হয়ে নিচে গেল ওরা নিচে নামতেই একটা পাগল আসলো ওদের সামনে চিৎকার দিয়ে পালারোর চেস্টা করলো কিন্তু পাগল টা চিৎকার করে বলতে লাগলো,তোরা কেউই বাচবি না, সবাই মরবি তোদের কপালে এটাই আছে হাহাহাহাহ। আনিকা গার্ড মেম কে ডেকে নিয়ে আসলো এসে দেখল পাগলটা চলে গিয়েছে।
গার্ড মেম একটা থাপ্পর দিল আনিকা কে
হিমু:মে, ম আপনার কি মনে হয় আমরা পাগল আমরা ৬ জন আপনাকে মিথ্য বলবো।
মেম: কিছু বলতে নিবে ওমনি ২ তলা থেকে দাম করে পরলো পুর্নি র লাস সবাই চিৎকার করতে লাগলো আর ভয়ে কান্না করতে লাগলো।
মেম তারাতারি করে মেন স্যার আর পুলিশ কে ডেকে আনলো।
হিমু জোড়ে জোড়ে কান্না করতে লাগলো। কিন্তু আশ্চযের বিষয় লাস ওপর থেকে পরার পর নিচে নেমে আসলো মিলি
মিলি অস্বাভিক আচরন করতে লাগলো এটা আমার পুতুল তাই ওপর থেকে পরে গেছে আমি নিতে এসেছি।হিমি;মা,,,,,মে মি,,,লি দেখ আমার দিকএ তুমি মিথ্য কেন বলো এটা পু,,তুল না পুর্নি র লাস তুমি,, কি দেখছো কে ফেলেছে ওকে
মেম:আমার মনে হয় এই পাগল মেয়েটাই ফেলেছে
আনিকা:মেম এটা সম্ভব না মিলি হোস্টেল আসলো কিভাবে আচ্ছা মেম হোস্টেল তো একটা পাখি ও ডুকতে পারে না তাহলে মিলি কীভাবে ডুকলো। ম
মেম:ওর মা এসেছে দেখনি তোমরা
একটু পরই আসলো মিলির মা বাবা কোথায় আমাদের মেয়ে।
মেম: এই যে আপনার খুনি মেয়ে
মিলির মা: কিন্তু মিলি এখানে আসলো কীভাবে। কাল রাত থেকে পাচ্ছিলাম না ওরে।আর আমার মেয়ে কোনো খুনন করেনি মিথ্য অপবাদ দিবেন না
মিলির বাবা:হ্যা আমার মেয়ে এখন কোনো কিছু বুজার অবস্হায় নেই।
পুলিশ:প্রমান আছে বলেন এখন মিলি কে এরেস্ট করতে হবে সরি।

মিলিকে এরেস্ট করে নিয়ে চলে গেল।

Share This:

jannatul

i love story writting
Close Menu

Content

Share This: